সিরাজগঞ্জে নেসকোর ‘ভুতুড়ে গড় বিল’ খতিয়ে দেখার নির্দেশ এমপির

প্রকাশিত: ১০:২৬ অপরাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২০

সিরাজগঞ্জে নেসকোর ‘ভুতুড়ে গড় বিল’র বিপরীতে গ্রাহক হয়রানি নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর জেলা প্রশাসনকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিলেন সিরাজগঞ্জ-২ (সদর ও কামারখন্দ) আসনের এমপি ডা. প্রফেসর হাবিবে মিল্লাত মুন্না। মঙ্গলবার (২৩ জুন) দুপুরে জেলা মাসিক উন্নয়ন ও করোনা নিয়ে আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদকে বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বলেন তিনি। এনবিআর চেয়ারম্যান সিনিয়র সচিব আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিমসহ প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সংসদ সদস্য হাবিবে মিল্লাত বলেন, চলমান করোনা পরিস্থিতির শুরুর দিকেই লকডাউনের কারণে সাধারণ মানুষের আয়-রোজগার কমে গেছে। বর্তমানে করোনাসহ বিভিন্ন সমস্যার বিরুদ্ধে লড়ছে সাধারণ মানুষ। এ অবস্থায় ‘ভুতুড়ে গড় বিল’ দিয়ে নেসকো যেনো গ্রাহকদের হয়রানি না করে। এসময় বাংলা ট্রিবিউনে সংবাদ প্রকাশের বিষয়টিও উল্লেখ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, চলমান করোনার শুরুতেই সিরাজগঞ্জে নেসকোর প্রি-পেইড বিদ্যুতের ভেন্ডিং স্টেশনের ছয়টি বুথই বিকল থাকায় ভেন্ডিং স্টেশন থেকে সরাসরি বিদ্যুত কিনতে পারেননি ১৫ হাজার গ্রাহক। অনেকেই এসময় নিজ খরচে ডিজিটাল মিটার কিনতে বাধ্য হন। কেউ কেউ নেসকোর পরামর্শে মিটার ডাইরেক্ট করে নিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহার করেন। করোনা পরিস্থিতিতে গত বছরের বিদ্যুৎ ব্যবহারের রেকর্ড দেখে প্রায় ৩ মাস পর গ্রাহকের গড় বিল করে নেসকো। গত বছর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও দোকানপাট চালু থাকলেও এ বছর করোনার সময়ে অধিকাংশই বন্ধ। এরপরেও নেসকো গড়বিলের নামে অতিরিক্ত টাকার ভুতুড়ে বিল চাপিয়ে দিচ্ছে। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন সাধারণ গ্রাহকরা। আয়-রোজগার না থাকায় বিলের বকেয়া বোঝা পরিশোধ নিয়ে হতাশায় রয়েছেন জেলা শহরের সাড়ে প্রায় পাঁচ হাজার গ্রাহক।